বুধবার, জুন ২৩ ২০২১ | ৯ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ - বর্ষাকাল | ১২ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

টেলিযোগাযোগ খাতে কর সম্পর্কিত দাবিগুলো পুনর্বিবেচনার আহ্বান অ্যামটবের

সাইবারবার্তা ডেস্ক: টেলিযোগাযোগ খাতের ট্যাক্স নিয়ে সরকার কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। দেখা হয়নি অ্যামটবের পক্ষ থেকে প্রস্তাবনাগুলো। প্রস্তাবনার মধ্যে ছিল সর্বনিম্ন টার্নওভার ট্যাক্স, করপোরেট ট্যাক্সসহ অন্যান্য। অপরদিকে নজর দেয়া হয়নি সিমের উপর অর্পিত ট্যাক্স, ভয়েস এবং ডেটার উপর ট্যাক্সের বিষয়ের নজরটিও। ৮ জুন, বাজেট পরবর্তী এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি তুলেছে মোবাইল ফোন অপারেটরদের সংগঠন অ্যামটব।

 

সংবাদ সম্মেলনে অ্যামটবের সেক্রেটারি জেনারেল ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম ফরহাদ (অবঃ) জানান, মোবাইল অপারেটরা কখনোই ক্যাশ ইনসেনটিভ চায়নি, তবুও তাদের দেয়া প্রস্তাবনা গ্রহণ করা হয়নি ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে।

 

তিনি তার বক্তব্যে আরও জানান, প্রতিবছর টেলিকম প্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করতে হয়। ফলে এইখাতে সরকারের নজর না দেয়ার কারণে মোবাইল অপারেটরগুলোকে চ্যালেঞ্জের মুখ পড়তে হচ্ছে।

 

অ্যামটব সেক্রেটারি জানান, সর্বনিম্ন টার্নওভার ট্যাক্স ২ শতাংশ থেকে দশমিক ৫ শতাংশ, করপোরেট ট্যাক্স ৫ শতাংশ , সাপ্লিমেন্টারি ডিউটি ৫ শতাংশ এবং সিমের উপর থেকে ট্যাক্স কমালে গ্রাহক খরচ মোট কমবে ৭ শতাংশ। জিডিপিতে যোগ হবে এক হাজার ৮৯১ মিলিয়ন ডলার। টেলিযোগাযোগের সঙ্গে যুক্ত হবে ১২ মিলিয়ন মানুষ।

 

তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী, সরকার তাদের দেয়া প্রস্তাবনা মেনে নিলে আগামী পাঁচ বছরে সরকার এইখাত থেকে বিপুল পরিমান রাজস্ব পাবে।

 

ট্যাক্সের বিষয়ে সরকার টেলিকম অপারেটরদের সঙ্গে অসামঞ্জস্য আচরণ করছে বলে মন্তব্য করেন গ্রামীণফোনের ডিরেক্টর অ্যান্ড হেড অব রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স হোসেন সাদাত। ফলে টেলিকম অপারেটররা প্রান্তিকজনগোষ্ঠীকে টেলিযোগাযোগের সঙ্গে যুক্ত করার বিষয়ে পিছিয়ে পড়ছে।

 

বাংলালিংক-এর চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান জানান, প্রস্তাবিত বাজেটে টেলিকম অপারেটরদের যুক্তিসঙ্গত দাবি বিবেচনা করা হলে মোবাইল ফোন গ্রাহকরা আরও বেশি সুবিধা পেতেন। টেলিকম খাতে করের হার বাস্তবসম্মতভাবে কমানো হলে বিনিয়োগকারীরা দেশে বিনিয়োগ করতে উৎসাহিত হবে।

 

তাইমুর রহমানের সঙ্গে একমত পোষণ করে রবি’র চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলম জানান, চতুর্থ বা পঞ্চম প্রজন্মের জন্য টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো তৈরিতে লাগবে বিনিয়োগ। রেট অব রিটার্ন র‍্যাশনাল হয় তাহলে বিনিয়োগ আসবে। তবে দেশে পলিসিগতভাবেই বিনিয়োগকারীদের অনুৎসাহিত করা হচ্ছে। ভার্চুয়াল এই সংবাদ সম্মেলনে টেলিকম অপারেটররা টেলিযোগাযোগ খাতে কর সম্পর্কিত দাবিগুলো পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানান।

 

(সাইবারবার্তা.কম/আইআই/৯ জুন ২০২১)

শেয়ার করুন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
আরও পড়ুন

নতুন প্রকাশ