সোমবার, জুলাই ১৫ ২০২৪ | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - বর্ষাকাল | ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সাইবার সচেতনতার প্রচারে কাজ কর‌বে ফেনীর সময়

মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন : দৈনিক ফেনীর সময় এর ফেসবুক পেইজ ১০ মে রাত ১২ টার কিছু পর হ্যাকড হয়। বিষয়টি টের পেয়ে ফেনীর সময় টীম এর মধ্যে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা ছড়িয়ে পড়ে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে পাঠক-শুভানুধ্যায়ী মহলেও বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে উৎকন্ঠা আরও বেড়ে যায়। রাতে আমরা ঘটনাটি ফেনীর পুলিশ সুপার জনাব খোন্দকার নুরুন্নবী ও ফেনী মডেল থানায় অবহিত করি। তাদের পরামর্শ অনুযায়ী পরদিন সকালে সাধারন ডায়েরী করলে এই বার্তা পুলিশ সদর দপ্তরেও পৌঁছে যায়। আমাদের সাবেক ও বর্তমান সহকর্মীদের অনেকেই পেইজটি উদ্ধারে নানা উপায় খুঁজতে থাকে। একপর্যায়ে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশনের (সিসিএ ফাউন্ডেশন) কারিগরি দল নেতা জাহিদুল ইসলামের সহযোগিতায় ১৩ মে বৃহস্পতিবার রাত ১২ টার দিকে পেইজটি হ্যাকারদের কবল থেকে মুক্ত হয়।

 

দীর্ঘ প্রায় ৬০ ঘন্টার এই উদ্ধার তৎপরতায় ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগে নেতৃত্ব দেন সিসিএ ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম। তিনি প্রযুক্তি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান জাদুকর আইটিরও প্রধান নির্বাহী।

 

হ্যাকিংয়র বিষয়ে জনাব জাহিদ এর ভাষ্য, মূলত ফেনীর সময় কর্তৃপক্ষ একটি প্রতারক চক্রের ফাঁদে পড়ে এই পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন। পেইজ পরিচালনায় দায়িত্বরতদের একজনকে বিজ্ঞাপন দেয়ার আশ্বাস দিয়ে প্রতারক চক্র তাদের কাছ থেকে নানা তথ্য হাতিয়ে পেইজটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে যায়।

 

জাহিদ এর মতে, অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ পরিচালনার দায়িত্বে যারা থাকবেন তারা যেন এরকম বিষয়ে সতর্ক থাকেন। বিশ্বস্ত ব্যক্তি ছাড়া শুধু অনলাইনে পরিচিত কারো কাছে কিংবা অবিশ্বাস্য কোনো অফারের ফাঁদে পা দেয়া যাবেনা। আমরা জাহিদুল ইসলামসহ উদ্ধারকারী টীম ও সিসিএ ফাউন্ডেশনের সংশ্লিষ্টদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাই। এছাড়া সাইবার দূবৃর্ত্তদের কবল থেকে জনপ্রিয় দৈনিক ফেনীর সময় এর অফিসিয়াল পেইজটি উদ্ধারে সহযোগিতার জন্য পুলিশ সদর দপ্তরের সাইবার ক্রাইম ইউনিট ও জেলা পুলিশ এর প্রতিও বিশেষ কৃতজ্ঞতা। শ্বাসরুদ্ধকর এ সময়ে দেশ-বিদেশের হাজার হাজার পাঠক শুভানুধ্যায়ীদের ভালবাসায় আমরা অভিভূত।বিশেষ করে পেইজটির স্টোরীতে হ্যাকাররা পর পর দুটি অশালীন ছবি আপলোড করলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও মোবাইল ফোনে পাঠকদের প্রতিক্রিয়ায় আমরা আপ্লুত না হয়ে পারিনি। প্রায় ৬ হাজার লাইক ফলোয়ার সাইবার সন্ত্রাসীদের প্রতি ঘৃণা জানিয়ে পেইজ থেকে সরে পড়েন। অবশ্য তাঁদের অনেকেই পরবর্তীতে ফিরে আসছেন।না বলে পারছিনা-আমিও নিরাশ হয়ে পেইজটির আশা ছেড়ে যখন বিকল্প পথ নির্মাণের প্রস্তাব করি, তখন যাদুকর আইটির জাহিদ ভাই আশার মশাল হাতে আমাকে আশ্বস্ত করেন। তিনি বলেন, এই জনপদের মানুষের বিশ্বাসের ঠিকানা ফেনীর সময় পেইজ অবশ্যই উদ্ধার হবে।ঠিক ঈদের আগের রাতেই পেইজটি যখন ফিরে পাই সেই অনুভূতি প্রকাশের ভাষা নেই। পরম করুণাময়ের দরবারে শুকরিয়া জানাই, যিনি শত বাধা-বিপত্তি মাড়িয়ে আমাদের আরও এগিয়ে চলতে শক্তি যোগান। এভাবে নানা চক্রান্ত ষড়যন্ত্র অতিক্রম করেই ফেনীর সময় যুগপূর্তির দ্বারপ্রান্তে।

 

পরিশেষে বলতে চাই, প্রযুক্তির কল্যাণে যেভাবে আমাদের জীবনমানের উন্নয়ন ঘটছে সেভাবে প্রযুক্তির নিরাপত্তার বিষয়গুলো নিয়ে আমাদের সমাজে সচেতনতার খুব অভাব। আমরা এখন থেকে এসব বিষয়ে আরও সতর্ক হবো। সাইবার দুর্বৃত্তদের প্রতিরোধে প্রযুক্তি ব্যবহারকারীদের জন্যসচেতনতামূলক কর্মসূচি নিয়মিত প্রয়োজন। আমরা ফেনীর সময়ের পক্ষ থেকে সবসময় সাইবার সচেতনতার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর প্রচারে সর্বাত্মক চেষ্টা করবো। প্রিয় পাঠকদের আমরা আবারও বলতে চাই, আপনাদের ভালবাসাই আমাদের চলার পথের পাথেয়। আপনাদের সমর্থন থাকলে সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় ফেনীর সময় এর পথচলা অব্যাহত থাকবে।

 

লেখক:  সম্পাদক ও প্রকাশক, দৈনিক ফেনীর সময়

(সাইবারবার্তা.কম/জেডআই/১৭ মে ২০২১)

শেয়ার করুন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
আরও পড়ুন

নতুন প্রকাশ